প্রথম পাতা » Featured » মাগুরায় ভুল প্রশ্নপত্রে এসএসসি পরীক্ষা, ৭২ পরীক্ষার্থির ফলাফল নিয়ে শঙ্কা

মাগুরায় ভুল প্রশ্নপত্রে এসএসসি পরীক্ষা, ৭২ পরীক্ষার্থির ফলাফল নিয়ে শঙ্কা

মাগুরায় ভুল প্রশ্নপত্রে এসএসসি পরীক্ষা, ৭২ পরীক্ষার্থির ফলাফল নিয়ে শঙ্কা

প্রতিদিন ডেস্ক : পরীক্ষা কমিটির সরবরাহকৃত ভুল প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা দিয়ে বিপাকে পড়েছে মাগুরার শালিখা উপজেলার গঙ্গারামপুর পিকে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগের পরীক্ষার্থিরা। বিদ্যালয়টির পরীক্ষাথীরা এখন তাদের ফলাফল নিয়ে দারুন শঙ্কার মধ্যে রয়েছে। এ ঘটনায় দায়িত্বহীনতার কারণে কেন্দ্র সচিবকে বরখাস্ত করে তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

তথ্যানুসন্ধ্যানে জানা যায়, গঙ্গারামপুর পিকে মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগের ৭২ জন পরীক্ষার্থি এ বছর অনুষ্ঠিত এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। যাদের সকলেই নিয়মিত পরীক্ষার্থী। সেখানে অনিয়মিত পরীক্ষার্থী না থাকলেও রবিবার অনুষ্ঠিত পদার্থ বিজ্ঞান পরীক্ষায় ২০১৪ সালের সিলেবাস অনুযায়ি অনিয়মিত পরীক্ষার্থিদের জন্য প্রস্তুতকৃত প্রশ্ন তাদের মধ্যে সরবরাহ করা হয়। যথারীতি পরীক্ষার্থিরাও সরবরাহকৃত প্রশ্নপত্র অনুযায়ী উত্তরপত্র লিখে বাড়িতে ফিরে আসে। যে বিষয়টি মঙ্গলবার জানাজানি হলে পরীক্ষার্থী এবং অভিভাবকদের মধ্যে দারুন ক্ষোভ ও অসন্তোষের সৃষ্টি হয়।

বিদ্যালটির ক্ষতিগ্রস্থ পরীক্ষার্থী সুমাইয়া শমি, আনিসুর রহমান, পূজা রায়, মিশন সরকারসহ অন্যান্যরা জানায়, পদার্থ বিজ্ঞানের বহু নির্বাচনী অভিক্ষা প্রশ্নপত্রটি ৩৫ নম্বরের অবজেকটিভ। যে কারণে পরীক্ষা দেবার সময় তাদের কাছে প্রশ্নপত্রের কোথায়ও অস্বাভাবিকতা ধরা পড়েনি। কিন্তু মঙ্গলবার শিক্ষকদের কাছ থেকেই জানতে পারে যে তারা ভুল প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা দিয়েছে।

এ ঘটনার পর পরীক্ষার্থী এবং সংশ্লিষ্ট অভিভাবকরা দায়িত্বশীল গোষ্ঠির দায়িত্বহীনতায় ক্ষোভ প্রকাশ করে কোন পরীক্ষার্থী যাতে ক্ষতিগ্রস্থ না হয় সে জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সহায়তা কামনা করেছেন।

বিষয়টি নিয়ে গঙ্গারামপুর পিকে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক এবং কেন্দ্র সচিব নির্ণয় কুমার বিশ্বাস জানান, পরীক্ষার দিন সকালে বিদ্যালয়ের দায়িত্বরত শিক্ষক তোফায়েল আহমেদ থানা থেকে পদার্থ বিজ্ঞান পরীক্ষার প্রশ্নপত্র নিয়ে আসে। যেখানে নিয়মিত এবং অনিয়মিত দুটি বিভাগের প্রশ্নপত্রই ছিল। পরীক্ষা শুরুর আগে দায়িত্বশীল অন্যান্যদের সামনেই প্রশ্নপত্র খোলা হয়। কিন্তু ভুলক্রমে তারা বহুনির্বাচনী অভিক্ষার প্রশ্নপত্র বের করার সময় ২০১৬ সালের নিয়মিত পরীক্ষার্থিদের জন্য নির্ধারিত প্রশ্নপত্রের বাণ্ডিলের পরিবর্তে ২০১৪ সালের অনিয়মিত পরীক্ষার্থিদের জন্য নির্ধারিত প্রশ্নপত্রের বাণ্ডিল খুলে ফেলে। আর ওই প্রশ্নপত্র অনুযায়ীই পরীক্ষার্থিরা পরীক্ষা দিয়েছে।

তবে এটিকে অনিচ্ছাকৃত ভূল হিসেবে দাবি করে কেন্দ্র সচিব বলেন, বিষয়টি জানার পর আমরা যশোর বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বরাবর আবেদন করেছি।

এ বিষয়ে মাগুরা জেলা প্রশাসক মুহ. মাহবুবর রহমানের সঙ্গে গতকাল মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ৩ টায় মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ বিষয়ে কিছু জানেন না বলে জানান। সংশ্লিষ্ট ইউএনও মোমিন উদ্দিনও এ বিষয়ে তাকে অবহিত করেন নি। তবে বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন বলে তিনি আশ্বাস দেন।

সর্বশেষ প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী কেন্দ্র সচিব নির্ণয় কুমার বিশ্বাসকে ওই কেন্দ্রের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে। এ ছাড়াও শালিখা উপজেলা ভূমি কর্মকর্তা সালমা শিলাকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Logo_image
সম্পাদক: জাহিদ রহমান
নির্বাহী সম্পাদক: আবু বাসার আখন্দ
প্রকাশক:: জাহিদুল আলম
যোগাযোগ:
পৌর সুপার মার্কেট ( দ্বিতীয় তলা), এমআর রোড, মাগুরা।
ফোন: ০১৯২১১৬১৬৮৭, ০১৭১৬২৩২৯৬২
ইমেইল: maguraprotidin@gmail.com