প্রথম পাতা » Featured » শ্রীপুরে ইউপি নির্ব‍াচনে আওয়ামী লীগ থেকে কারা পাচ্ছেন মনোনয়ন?

শ্রীপুরে ইউপি নির্ব‍াচনে আওয়ামী লীগ থেকে কারা পাচ্ছেন মনোনয়ন?

শ্রীপুরে ইউপি নির্ব‍াচনে আওয়ামী লীগ থেকে কারা পাচ্ছেন মনোনয়ন?

মাগুরা প্রতিদিন রিপোর্ট: আগামী ২৩ এপ্রিল শনিবার মাগুরা জেলার শ্রীপুর উপজেলার ৮টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আর এ ইউনিয়নগুলোতে কারা পাচ্ছেন দলীয় মনোনয়ন তা নিয়ে ইতোমধ্যে স্থানীয় সাধারণ ভোটারদের মধ্যে যেমন উত্সাহের সৃষ্টি হয়েছে। তেমনি দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী আওয়ামী লীগের প্রার্থিদের দৌড়ঝাপও শুরু হয়ে গেছে।

শ্রীপুরের ৮টি ইউনিয়নের মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ধার্য্য করা হয়েছে ২৭ মার্চ । ২৯-৩০ মার্চ মনোনয়নপত্রের চূড়ান্ত বাছাই। ৬ এপ্রিল মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ সুযোগ পাবে প্রার্থীরা।

এ উপজেলার মোট আটটি ইউনিয়ন হলো-গয়েশপুর ইউনিয়ন, আমলসার ইউনিয়ন, শ্রীকোল ইউনিয়ন, শ্রীপুর ইউনিয়ন, দ্বারিয়াপুর ইউনিয়ন, কাদিরপাড়া ইউনিয়ন, সব্দালপুর ইউনিয়ন এবং নাকোল ইউনিয়ন। এর মধ্যে সর্বশেষ ইউপি নির্বাচন এবং উপনির্বাচনে যারা নির্বাচিত হন তারা হলেন- ১ নং গয়েশপুর ইউনিয়নে আব্দুল হালিম মোল্লা, ২ নং আমলসার ইউনিয়নে সেবানন্দ বিশ্বাস, ৩ নং শ্রীকোল ইউনিয়নে কুতুবুল্লাহ হোসেন মিয়া, ৪ নং শ্রীপুর ইউনিয়ন মো. মসিয়ার রহমান, ৫ নং দ্বারিয়াপুর ইউনিয়নে কাজী মহিদুল আলম মহিদ, ৬ নং কাদিরপাড়া ইউনিয়নে পারভীন সুলতানা রুমু, ৭ নং সব্দালপুর ইউনিয়নে মো. সিরাজুল ইসলাম এবং ৮নং নাকোল ইউনিয়নে মো. শাজাহান মিয়া।

ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন ঘিরে গোটা উপজেলাতে সাজ সাজ রব চলছে। তবে একই সাথে দলীয় মনোনয়ন পাওয়া না পাওয়াকে ঘিরে ক্ষোভ, অসন্তোষও তৈরি হচ্ছে। বিশেষ করে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের ভেতর এ বিষয়টি ক্রমশই প্রবল আকার ধারণ করতে যাচ্ছে। দলীয় মনোনয়ন ঘোষিত হলে ক্ষোভ, অসন্তোষ কোথায় গিয়ে ঠেকে সেটাই এখন দেখার বিষয়।

বিশ্বস্ত সূত্র থেকে জানা গেছে জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সবকটি ইউনিয়নের প্রার্থী এখনও চূড়ান্ত করা সম্ভব হয়নি। জেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতৃবৃন্দ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একান্ত সহকারি সচিব অ্যাডভোকেট সাইফুজ্জামান শিখরের সাথে প্রার্থী চূড়ান্ত করতে কয়েক দফা আনুষ্ঠানিক বৈঠকও করেছেন। তবে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রত্যয়ন দিলেই শ্রীপুরের কে কোন ইউনিয়ন পরিষদে চূড়ান্ত মনোনয়ন পাচ্ছন সেটি শতভাগ নিশ্চিত হওয়া যাবে। এদিকে আওয়ামী লীগ থেকে দলীয় মনোনয়ন নিশ্চিত করার জন্যে আগ্রহী প্রার্থীরা এখনও জেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের সাথে যোগাযোগ অব্যাহত রেখেছে।

শ্রীপুরের আটটি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ থেকে দলীয় মনোনয়ন কে কে পাচ্ছেন এ বিষয়টি নিয়ে নানান ধরনের গুঞ্জন চলছে।

১ নং গয়েশপুর ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল হালিম মোল্লা দলীয় মনোনয়ন পাচ্ছেন এটি নিশ্চিত।

একইভাবে ২ নং আমলসার ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান সেবানন্দ বিশ্বাস-এরও দলীয় মনোনয়ন পাওয়াটাও চূড়ান্ত বলে জানা গেছে।

৩ নং শ্রীকোল ইউনিয়নে মুশতাহিম বিল্লাহ সংগ্রামের নৌকা প্রতীক নিয়ে লড়বেন এটি নিশ্চিত হয়েছে আগেভাগেই। এই ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগের অন্যতম নেতা কুতুবুল্লাহ হোসেন মিয়া (কুটি) দলীয় মনোনয়ন না চাওয়ায় মুশতাহিম বিল্লাহ সংগ্রামের দলীয় মনোনয়নের পথে আর তেমন কেউ বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারেনি। তবে বিপুল ভোটে নির্বাচিত বর্তমান জনপ্রিয় চেয়ারম্যান কুতুবুল্লাহ হোসেন মিয়া (কুটি) স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার ঘোষণা দেওয়ায় এই ইউনিয়নের নির্বাচনী হাওয়া অন্যরকম হতে শুরু করেছে। এই ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের বড় অংশই কুটির সাথে থাকবে বলেই প্রতীয়মান হচ্ছে।

৪ নং শ্রীপুর ইউনিয়নে চূড়ান্ত মনোনয়ন কেউ পাচ্ছেন এই জটিলতা এখনও কাটেনি। যদিও বর্তমান সফল চেয়ারম্যান মো. মসিয়ার রহমান দলীয় মনোনয়ন পাচ্ছেন বলে শোনা যাচ্ছে। এই ইউনিয়নে মনোনয়ন দৌড়ে আছেন আওয়ামী লীগ নেতা আখেরুজ্জামান বিশ্বাস এবং সুবীর সরকার।

সর্বমহলে পরিচিত আখেরুজ্জামান বিশ্বাস অনেক আগে থেকেই দলীয় মনোননয় পাওয়ার জন্যে প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছিলেন। কয়েকদিন আগে মসিয়ার রহমান শ্রীপুর বাজারে জনৈক সংখ্যালঘুর মিষ্টির দোকানে হামলা চালালে বিষয়টি তার চূড়ান্ত মনোনয়নে বাধা হয়ে দাঁড়ায়। তবে জেলার গুরুত্বপূর্ণ দুজন নেতা সরাসরি মসিয়ারের পক্ষে অবস্থান নেওয়ায় আখেরুজ্জামান বিশ্বাস মনোনয়ন দৌড়ে খানিকটা পিছিয়ে পড়েছেন।

৫ নং দ্বারিয়াপুর ইউনিয়নে সাবেক ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি এবং বর্তমান জেলা যুবলীগ সদস্য চৌগাছী গ্রামের আরজান বিশ্বাস বাদশা এবং আওয়ামীলীগ নেতা  জাকির হোসেন কানন মনোনয়ন দৌড়ে এগিয়ে আছেন। উভয়েই নিজেদের অবস্থান ধরে রাখতে নির্বাচনী তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন।

৬ নং কাদিরপাড়া ইউনিয়নে পরেশ রাউত মনোনয়ন পাচ্ছেন এমনটি শোনা গেলেও কমলাপুরের লিয়াকত আলীর দিকেই এখন বড় সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।

এদিকে ৭ নং সব্দালপুর ইউনিয়নে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোল্লা নুরুল ইসলাম অথবা বর্তমান চেয়ারম্যান সিরাজুলই ইসলামের মধ্যে যে কেউ একজন মনোনয়ন পাবেন। এই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোল্লা নুরুল ইসলাম চূড়ান্ত মনোনয়ন পেলেও তাঁকে কঠিন পরীক্ষা সামলাতে হবে। ইতিমধ্যে এই ইউনিয়নের বিত্তশালী ও নিয়ন্ত্রকদের প্রায় সবাই তার বিরুদ্ধে অবস্থান গ্রহণ করেছে। ৮নং নাকোল ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের পরীক্ষিত নেতা বর্তমান চেয়ারম্যান মো. শাজাহান মিয়ার মনোনয়ন পাওয়ার কথা থাকলেও তাঁরই কাছে সর্বশেষ ইউপি নির্বাচনে পরাজিত প্রার্থী হুমায়ূন উর রশিদ মুহিত এই ইউনিয়নে নিজেই মনোনয়ন চাওয়ায় এক ধরনের ধুম্রজাল তৈরি হয়েছে। আওয়ামী লীগের অন্যতম নীতি নির্ধারক এবং জেলা নেতৃবৃন্দ হুমায়ূন উর রশিদ মুহিতের আবদারকে বারবার অগ্রাহ্য করলেও নানা কৌশলে চূড়ান্ত মনোনয়ন করায়ত্ব করতে উঠেপড়ে লেগেছেন। এই ধারাবাহিকতায় নাকোল ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা মো. শাজাহান মিয়া চূড়ান্ত অবিচারের শিকার হতে পারেন। জেলা আওয়ামী লীগের জনৈক নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানিয়েছেন নাকোল ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান, আওয়ামী লীগ নেতা মো. শাজাহান মিয়াকে দলীয় মনোনয়ন প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত করে ইউনিয়ন ও উপজেলা নির্বাচনে বারবার পরাজিত হুমায়ূন উর রশিদ মুহিতকে মনোনয়ন দেওয়া হলে আওয়ামী লীগ জেলার শাখার নেতৃবৃন্দের রাজনৈতিক দক্ষতা, নেতৃত্ব ও সততা নিশ্চিত প্রশ্নবিদ্ধ হবে। একই সাথে শ্রীপুর উপজেলার রাজনীতিতে আগামীতে এক ধরনের প্রকাশ্য বিশৃক্সখলাও তৈরি হবে।

মনোনয়ন সম্পর্কে মাগুরা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পঙ্কজ কুন্ডু জানিয়েছেন দলীয় সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রত্যয়ন করার পরপরই শ্রীপুরের আটটি ইউনিয়নে দলীয় মনোনয়ন কারা পেয়েছেন সেটা স্পষ্ট হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রত্যয়ন করার পরপরই সেটি চূড়ান্তভাবে দলীয় মনোনয়ন পাওয়া প্রার্থীদের হাতে তুলে দেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Logo_image
সম্পাদক: জাহিদ রহমান
নির্বাহী সম্পাদক: আবু বাসার আখন্দ
প্রকাশক:: জাহিদুল আলম
যোগাযোগ:
পৌর সুপার মার্কেট ( দ্বিতীয় তলা), এমআর রোড, মাগুরা।
ফোন: ০১৯২১১৬১৬৮৭, ০১৭১৬২৩২৯৬২
ইমেইল: maguraprotidin@gmail.com