প্রথম পাতা » Featured » চিকিত্সকরা বিষয়টিকে গুজবের কারণে সৃষ্ট গণ হিস্টিরিয়া বলে চিহ্নিত করেছেন

চিকিত্সকরা বিষয়টিকে গুজবের কারণে সৃষ্ট গণ হিস্টিরিয়া বলে চিহ্নিত করেছেন

চিকিত্সকরা বিষয়টিকে গুজবের কারণে সৃষ্ট গণ হিস্টিরিয়া বলে চিহ্নিত করেছেন

মাগুরা প্রতিদিন ডট কম : মাগুরা সদর হাসপাতালের চিকিত্সকরা পুরো বিষয়টিকে গুজবের কারণে গণ হিস্টিরিয়া বলে চিহ্নিত করেছেন। কৃমির ওষুধ সেবনের পর আতংকগ্রস্থ’ হয়ে রবিবার একই স্কুলের ৩০ জন ছাত্রছাত্রী সদর হাসপাতালে চিকিত্সা নেওয়ায় তারা এই দাবি করেছেন।

মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি সদর উপজেলার কাটাখালি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রী মেঘলার নিকটাত্মীয় সীমা পারভিরনসহ কয়েকজন অভিভাবক জানান, শনিবার সকালে সরকারি মেডিকেল টিম ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থিদের কৃমির ওষুধ সেবন করায়। সারাদিন রাত পেরিয়ে গেলেও তাদের কারো কোন সমস্যা হয়নি। অথচ রবিবার সকালে উর্মি নামে এক ছাত্রী স্কুলে গিয়ে হঠাত পেটে ব্যাথা ও বমির কথা জানায়। এ সময় তাকে মাগুরা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। এ ঘটনা জানা জানির কিছুক্ষণের মধ্যেই ওই স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে একে একে ৩০জন একই রকম উপসর্গ নিয়ে অসুস্থতার কথা বলে। তাদেরকেও মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সদর হাসপাতালে ভর্তি ওই স্কুলের ৭ম ও ৬ষ্ঠ শ্রেনীর ছাত্রী রেহেনা, লিমা, তুলি, তিন্নিসহ অনেকে জানায়, শনিবার রাত থেকেই তাদের পেটে ব্যাথা, মাথাঘোরাসহ বিভিন্ন সমস্যায় ভুগছিল। এ অবস্থায় তারা রবিবার সকালে স্কুলে গিয়ে আকস্মিকভাবে আরো অসুস্থ হয়ে পড়ে। এ সময় শিক্ষকসহ এলাকাবাসী তাদের মাগুরা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে।

তবে মাগুরার সিভিল সার্জন ডা. মুন্সি ছাদউল্লাহ এ বিষয়ে বলেন, এটি আতংকজনিত অসুস্থতা। যেটিকে মাস হিস্ট্রিয়া বলে। এটির সাথে কৃমির ওষুধ সেবনের কোন সম্পর্ক নেই। যে কোন কিছু সেবনের ৪ ঘন্টা পর এটির কোন ক্রিয়া থাকে না। ফলে প্রত্যেকে যেহেতু দীর্ঘ সময় পর অসুস্থ হয়েছে। এ কারণে এটি আতংক ছাড়া আর কিছু নয়। সদর হাসপাতালে আনার পর প্রাথমিক চিকিত্সাতেই অনেকে সুস্থ হয়ে গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Logo_image
সম্পাদক: জাহিদ রহমান
নির্বাহী সম্পাদক: আবু বাসার আখন্দ
প্রকাশক:: জাহিদুল আলম
যোগাযোগ:
পৌর সুপার মার্কেট ( দ্বিতীয় তলা), এমআর রোড, মাগুরা।
ফোন: ০১৯২১১৬১৬৮৭, ০১৭১৬২৩২৯৬২
ইমেইল: maguraprotidin@gmail.com