প্রথম পাতা » Featured » মাগুরা জেলা দায়রা জজের উদ্যোগে আদালতে আসামিদের জন্য খাবার ব্যবস্থা চালু

মাগুরা জেলা দায়রা জজের উদ্যোগে আদালতে আসামিদের জন্য খাবার ব্যবস্থা চালু

মাগুরা জেলা দায়রা জজের উদ্যোগে আদালতে আসামিদের জন্য খাবার ব্যবস্থা চালু

মাগুরা প্রতিদিন ডট কম : মাগুরার জেলা ও দায়রা জজের উদ্যোগে আদালতে হাজিরা দিতে আসা আসামিদের জন্য চালু করা হলো দুপুরের খাবার। রবিবার আদালতে আসা ২০ আসামীর জন্য আলাদা করে জেলখানা থেকে গাড়িতে করে পাঠানো হলো খিচুড়ি। এতে অভূক্ত আসামিরা যেমন খুশি হয়েছে। তেমনি এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন স্থানীয় বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠনের নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিরা।

জানা যায়, বর্তমানে মাগুরা জেলখানায় ৩শত জনেরও অধিক হাজতি ও কয়েদি রয়েছে। যাদের জন্য প্রতিদিন সকালে রুটি-গুড়, দুপুরে ডাল-ভাত এবং রাতের জন্য ভাতের সঙ্গে মাছ বা মাংসের অংশ বরাদ্দ রয়েছে। কিন্তু আদালতে হাজিরা দিতে যাওয়া আসামিদের সারাদিনই প্রায় অভূক্ত অবস্থায় দিন কাটাতে হয়।

সূত্র মতে, মাগুরা জেলখানা থেকে প্রতিদিন ২০ থেকে ৫০ জন কখনো ১শ জন আসামিকে আদালতে হাজিরা দিতে যেতে হয়। তারা সকালে জেলখানায় দুই টুকরো রুটির সঙ্গে গুড় মিশিয়ে খাওয়ার সুযোগ পেলেও দুপুর বা রাতে তাদের একেবারেই অভূক্ত থাকতো হয়। গত ১৭ মে তারিখে মাগুরা জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমানের নেতত্বে মাগুরা জেলা লিগ্যাল এইড কমিটি জেলখানা পরিদর্শনে গেলে আসামিদের এই দূর্দশার বিষয়টি ধরে পড়ে। যার প্রেক্ষিতে বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা জজ মাগুরা পুলিশ সুপারের সহযোগিতায় রবিবার থেকে আদালতে হাজিরা দিতে আসা ওইসব আসামিদের জন্য খাবারের ব্যবস্থা করেন।

মাগুরার সহকারি জজ ও জেলা লিগ্যাল এইড কর্মকর্তা ইয়াসমিন নাহার জানান, মামলার হাজিরার জন্য আসামিরা সেই সকালে রুটি-গুড় খেয়ে আসলেও আদালতের কার্যক্রম শেষ হতে দিন শেষ হয়ে যায়। কখনো সন্ধ্যার সময় তাদের ফিরতো হয়। এতে করে তারা দুপুরের খাবার খেতে পারে না। অন্যদিকে জেলখানায় প্রতিদিনের রাতের খাবার বিকাল ৫টায় দেওয়ার বিধান থাকায় রাতের খাবারটি আদালত ফেরত আসামিরা খাওয়ার সুযোগ পায় না। আদালতে হাজিরার পর যাবতিয় কার্যক্রম শেষে আসামিদের জেলখানায় ফিরতে কখনো সন্ধ্যাও হয়ে যায়। কিন্তু সেই সময় তাদের জন্যে আলাদাভাবে আর খাবার বরাদ্দ করা হয় না। এতে করে সারাদিনই একরকম ক্ষুধায় কষ্ট পেলেও পরেরদিন সকালের রুটি গুড়ের দিকে তাকিয়ে থাকতে হয় তাদের। যেটি একেবারেই অমানবিক। যে কারণেই জেলা দায়রা জজ মহোদয়ের উদ্যোগে রবিবার থেকে আদালতে আসা আসামিদের জন্য খাবারের ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে।

তবে মাগুরার জেল সুপার তায়েফ উদ্দিন মিয়া বলেন, বিধান অনুযায়ীই আসামিদের জন্যে বরাদ্দকৃত খাবার দেওয়া হয়। তাছাড়া আদালতে হাজিরার দিনে আসামীর আত্মীয় স্বজনেরা খাবার নিয়ে আদালতে যায় বলেই হয়তো অনেক আসামী জেলখানার খাবার খায় না। এখানে তাদের সঙ্গে অমানবিক কোন আচরণ করা হয় না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Logo_image
সম্পাদক: জাহিদ রহমান
নির্বাহী সম্পাদক: আবু বাসার আখন্দ
প্রকাশক:: জাহিদুল আলম
যোগাযোগ:
পৌর সুপার মার্কেট ( দ্বিতীয় তলা), এমআর রোড, মাগুরা।
ফোন: ০১৯২১১৬১৬৮৭, ০১৭১৬২৩২৯৬২
ইমেইল: maguraprotidin@gmail.com