প্রথম পাতা » বিনোদন » মাগুরায় জমজমাট ঈদ বাজার

মাগুরায় জমজমাট ঈদ বাজার

মাগুরায় জমজমাট ঈদ বাজার

এস আলম তুহিন, প্রতিদিন ডেস্ক:
মাগুরায় জমে উঠেছে ঈদের কেনাকাটা। ঈদকে সামনে রেখে শহরের শাড়ী কাপড়, ছিট কাপড়, দর্জির দোকান, কসমেটিকস থেকে শুরু করে প্রতিটি বিপণি বিতানে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড়। ঈদ বাজারে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ক্রেতাদের এ ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।
শহরের বেবী প্লাজা, নুরজাহান প্লাজা, বকসী মার্কেট, খান সুপার মার্কেট, শাহিদা মার্কেট, কাপুড়িয়া পট্টি, জুতা পট্টি এলাকায় ঘুরে দেখা গেছে প্রতিটি দোকানেই ক্রেতারা ভিড় করছেন তাদের পছন্দের পোশাক কিনতে। ঈদে তরুনী ও গৃহবধুদের পছন্দের তালিকায় থাকে শাড়ী । শাড়ী নাড়ীর সৌন্দর্যের অন্যতম প্রতীক । ঈদে এবার মাগুরার বিভিন্ন শাড়ীর দোকানে এসেছে দেশী ও বিদেশী নজরকাড়া ডিজাইনের আকষনীয় শাড়ী । শহরের ঢাকেশ্বরী বস্ত্রালয়ে মালিক তাপস বিশ্বাস জানান , ঈদে এবার দেশী শাড়ীর চাহিদা খুব বেশী । ক্রেতাদের চাহিদার কথা বিবেচনা করে আমরা নানা ডিজাইনের আকষনীয় শাড়ী এনেছি । তার মধ্যে দেশী টাঙ্গাইলের জুট জামদানির কদর খুব বেশী । এ শাড়ীগুলো বিক্রি হচ্ছে ১৫০০ টাকা থেকে ৪০০০টাকা পযর্ন্ত । তাছাড়া টাঙ্গাইলের সিøক ,কাতান , বেনারসী, রেশম জামদানি ,তাতের সুতি শাড়িও ক্রেতারা কিনছেন । খান সুপার মার্কেটের শ্রীনিকেতন বস্ত্রালয়ের মালিক তনয় বিশ্বাস জানান, দশ রোজা থেকে বেচাকেনা মন্দা গেলেও গত দু’দিন ধরে জমজমাট বেচাকেনা হচ্ছে। ঈদে ক্রেতাদের চাহিদার কথা বিবেচনা করে তিনি দোকানে নিত্যনতুন ডিজাইনের শাড়ী তুলেছেন। ঈদ উপলক্ষে নতুন আসা কাপড়ের মধ্যে রয়েছে লেহেঙ্গা, জুট সিল্ক, জামদানি, কলাবেরি সিল্ক, কে-ক্রাফট, এমপ্লাস, টাপুর-টুপুর, বাহা, বেনারশি সহ বিভিন্ন প্রকার তাঁতের শাড়ি। যার মূল্য এক হাজার টাকা থেকে শুরু করে ত্রিশ হাজার টাকা পর্যন্ত। বেবী প্লাজার শিকদার বস্ত্রালয়ের মালিক কিশোর শিকদার জানান, ঈদ উপলক্ষে গত দু’দিন ধরে তার দোকানে প্রতিদিন ভাল বিক্রি হচ্ছে। বর্তমানে মার্কেটে আসা ক্রেতাদের অধিকাংশই চাকরিজীবী ও ব্যবসায়ী। তিনি আরো জানান , সেক্ষেত্রে পঁচিশ রোজার পর বিক্রি আরো বাড়বে। শহরের মানুষের পাশাপাশি গ্রামের প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষেরা ব্যস্ত সময় পার করছেন ঈদ বাজারে। বিগত কয়েক বছরের তুলনায় এবার ঈদের বাজারে অনেক পোশাকের দাম চড়া বলে অনেক ক্রেতারা জানান।
তবে ব্যবসায়িদের বক্তব্য বেশি দামে পোশাক কেনার কারনে তাদের একটু চড়া দামে বিক্রি করতে হচ্ছে। এবারের ঈদে ভারতিয় বিভিন্ন সিরিয়ালের নাম অনুশারে বাজারে এসেছে নানা আকষনিয় পোশাক। তাছাড়া দেশি পোশাকের চেয়ে ভারতিয় পোশাকের চাহিদা অনেক বেশি বলে ব্যবসায়িরা জানান। এবারের ঈদে মেয়েদের পছন্দের থ্রিপিচের মধ্যে বাজারে এসেছে তোকা তোকা , কিরনমালা , জলনুপুর , ফ্লোর টাচ , কটকটি , রায়কিশোরি , রাউন্দও লল কামিজ অন্যতম। এসব থ্রিপিস ১০০০ টাকা থেকে ৫০০০ টাকা পযন্ত ব্রক্রি হচ্ছে । শহরের মাহী বস্ত্রালয়ের সত্ত¡াধিকারী শরীফ রেজাউল করীম জানান ,এবারের ঈদে তরুনী মেয়ে লং থ্রী পিচ ও পাকিস্তানি লং থ্রী পিচ ভালো চলছে। এ সব লং থ্রী পিচ ৭০০ টাকা থেকে ৩০০০ টাকা পযর্ন্ত বিক্রি হচ্ছে।
অন্যদিকে স্যালোয়ার-কামিজ, শার্ট-প্যান্ট, ছিট কাপড়ের দোকানেও ক্রেতাদের ভিড় দেখা গেছে। খান সুপার মার্কেটের বস্ত্র ব্যবসায়ী মালিক উজ্জল কুমার জানান, ঈদ উপলক্ষে কাতান, কারচুপি, পাকিস্তানী, নিরা, সিজার, রিস্তা সহ নতুন নতুন ডিজাইনের থ্রী-পিচ বিক্রি করছেন। রোজার শুরুতে বেচাকেনা না থাকলেও এখন ক্রেতাদের ভিড়ে দম ফেরানোর সময় নাই বলে তিনি জানান। সানমুন টেইলার্সের মালিক মোস্তাফিজুর রহমান জানান, বেচাকেনার পাশাপাশি শার্ট-প্যান্ট তৈরির যে অর্ডার রয়েছে তাতে করে বাইশ রোজার পর থেকে তিনি নতুন অর্ডার নেয়া বন্ধ করে দেবেন। পোশাক-আশাকের পাশাপাশি কসমেটিকস ও জুতা-স্যাÐেলের দোকানেও ক্রেতারা ভিড় করছেন।
নুরজাহান প্লাজায় কসমেটিকস-এর দোকানে আসা ক্রেতা শান্তা পারভিন জানান, ঈদ উপলক্ষে তিনি ফ্লোর টাচ থ্রী-পিচ, স্যান্ডেল কেনার পাশাপাশি পছন্দের কসমেটিকস কেনার কাজও সেরে ফেলছেন। তবে ঈদের কেনাকাটা করতে আসা অধিকাংশ ক্রেতায় অভিযোগ করেন, গতবারের তুলনায় শাড়ী কাপড় ও থ্রী-পিচের দাম অনেক বেশী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Logo_image
সম্পাদক: জাহিদ রহমান
নির্বাহী সম্পাদক: আবু বাসার আখন্দ
প্রকাশক:: জাহিদুল আলম
যোগাযোগ:
পৌর সুপার মার্কেট ( দ্বিতীয় তলা), এমআর রোড, মাগুরা।
ফোন: ০১৯২১১৬১৬৮৭, ০১৭১৬২৩২৯৬২
ইমেইল: maguraprotidin@gmail.com