প্রথম পাতা » সংবাদ প্রতিদিন » ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আওয়ামীলীগ নেতা তাই…………

ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আওয়ামীলীগ নেতা তাই…………

ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আওয়ামীলীগ নেতা তাই…………

প্রতিদিন ডেস্ক: বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করছেন। যে কারণে রমজানের ছুটি চলা অবস্থায়ও ছাত্রদের ফোন ফোনে হাজির করে তাদের হাতে ধরিয়ে দেয়া হয়েছে নির্বাচনী প্রচার পত্র। যে বিষয়টি নিয়ে বিদ্যালয়ের সাধারণ ছাত্র-শিক্ষক এবং অভিভাবকদের মধ্যে ব্যাপক প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।
আগামি ২১ জুলাই তারিখে অনুষ্ঠিত হবে মাগুরা সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন। আর এ নির্বাচনে প্রতিদ্ব›িদ্বতা করছেন মাগুরা এজি একাডেমি বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি জেলা আওয়ামী লীগ নেতা আলহাজ্ব আবু নাসির বাবলু। শনিবার তারই নির্বাচনী প্রচার কাজ চালাতে মিথ্যা কথা বলে প্রায় ৩ শতাধিক ছাত্রকে বিদ্যালয়ে হাজির করা হয় বলে জানা গেছে।
আবুল হোসেন, গোলাম রসূল, ফারুক হোসেন সহ বিদ্যালয়ের বেশ ক’জন ছাত্র অভিভাবক জানান, বিদ্যালয়ের কয়েকজন সহকারী শিক্ষক মোবাইল ফোনে রিং করে তাদের সন্তানদের সকাল ১০টার ভিতর বিদ্যালয়ে উপস্থিত হবার জন্য অনুরোধ জানান। বিদ্যালয় বন্ধ থাকা অবস্থায়ও ছাত্র উপস্থিতি নিশ্চিত করতে ওই সব শিক্ষকেরা ‘হেড স্যার জরুরি কথা বলবেন’ বলে অভিভাবকদের জানান।
আবুল হোসেন নামে এক অভিভাবক বলেন, এই উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগের চারজন প্রার্থী এবং বিএনপির একজন প্রতিদ্ব›িদ্বতা করছেন। যে বিষয়টি ভোটাররা তাদের ভোটারাধিকার প্রয়োগের মাধ্যমে মিমাংসা করবেন। কিন্তু সেখানে বিদ্যালয়ের কোমলমতি ছাত্রদের ব্যবহার গর্হিত অপরাধ। আমরা সন্তানদের বিদ্যালয়ে রাজনৈতিক কাজের জন্য পাঠাইনি। কিন্তু সেখানে বিদ্যালয়ের শিক্ষক, পরিচালনা কমিটি তাদের এই জাতীয় কাজের সঙ্গে সম্পৃক্ত করবে সেটি ভাবনার অতিত।
অন্যদিকে সবুজ, নিলয়, আহসান, শাহরিয়ার সহ বেশ কজন সাধারণ ছাত্র জানায়, হেড স্যারের কথা বলে তাদের ডেকে নিয়ে গেলেও তিনি তাবলিক জামাতের সফরে থাকায় হেড স্যারকে পাওয়া যায়নি। উপরোন্তু তাদের ভিন্ন কথা বলে স্কুলে নিয়ে রাজনৈতিক কাজে নিয়োগ করা হয়েছে।
সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র শাহরিয়ার জানায়, বৃষ্টিতে ভেজার কারণে গত দুদিন ধরে তার জ্বর চলছে। তারপরও হেড স্যারের কথা শুনে স্কুলে গিয়েছি। কিন্তু দেখি সেখানে চলছে নির্বাচনী কাজ। ক্লাস রুমে যাবার পর স্বরোজিত স্যার তাদের হাতে নির্বাচনী প্রচারপত্র দিয়ে বিলি করতে অনুরোধ জানিয়েছেন।
একই ধরণের অভিযোগ দিয়েছে ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণীতে অধ্যায়নরত ছাত্রদের সকলেই। তবে সাধারণ ছাত্রদের অধিকাংশই প্রচারপত্র নিয়ে বাড়ি ফিরলেও কেউ কেউ স্কুল ক্যাম্পাসে সেগুলো ফেলে দিয়ে গেছে। ফেলে দেওয়া প্রচারপত্রগুলো এখনো সেখানে জজ্ঞাল হিসেবে স্বাক্ষ্য দিচ্ছে বলে তাদের অনেকে জানায়।
এদিকে বিষয়টি নিয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মোকতাদির রহমানের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, গত কদিন ধরে তিনি চিল্লায় মাগুরার বাইরে আছেন। যে কারণে দলীয় নির্বাচনী কাজে ছাত্রদের ব্যবহারের বিষয়ে তার কিছু জানা নেই।
অন্যদিকে সহকারী প্রধান শিক্ষক আনন্দ সাহা নির্বাচনী কাজে ছাত্রদের ব্যবহারের বিষয়টি গোপন করতে উপ-বৃত্তির ওজুহাত সামনে উপস্থাপনের চেষ্টা চালালেও সহকারী শিক্ষক স্বরোজিত বিশ্বাস ঘটনার সত্যতা শিকার করেছেন। তিনি বলেন, ম্যানেজিং কমিটি বিদ্যালয়ের অভিভাবক। তারা আমাদের যেকোন কাজে ব্যবহার করলে আমাদের কোন উপায় থাকে না। বিদ্যালয়ের শিক্ষক শামিমা ম্যাডাম পরিচালনা কমিটির সভাপতির স্ত্রী। তিনিই শিক্ষকদের দিয়ে এই কাজ করতে বাধ্য করেছেন।
এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা শামিমা বেগমের সঙ্গে যোগাযোগ করা করা না গেলেও কথা হয়েছে তার স্বামী বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি আওয়ামী লীগ নেতা আবু নাসির বাবলুর সঙ্গে। তবে তিনি বিদ্যালয়ের ছাত্রদের নির্বাচনী কাজে ডেকে আনার বিষয়টি বেমালুম অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, তার কর্মীরা সবখানে ভোট চাইতে যেতে পারে। সেটিকে কেউ হয়তো ভিন্নভাবে উপস্থাপন করেছে।
এ বিষয়ে মাগুরা জেলা প্রশাসক মুহ. মাহবুবর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এ ধরণের কোন অভিযোগ তার কাছে কেউ করেনি। তবে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পাওয়া গেলে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ ছাড়া নির্বাচনী আচরণ বিধি ভঙ্গ হলে সে বিষয়েও নির্বাচন কমিশন ব্যবস্থা নিতে পারে।
জেলা প্রশাসকের সূত্রে ধরে এ নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার মাগুরার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সৈয়দ রবিউল ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, নির্বাচনী প্রচারণা যে কেউ চালাতে পারে। কিন্তু এই বিষয়টি একে বারেই ভিন্ন এবং অনৈতিক। তবে এ বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোন অভিযোগ পাওয়া গেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Logo_image
সম্পাদক: জাহিদ রহমান
নির্বাহী সম্পাদক: আবু বাসার আখন্দ
প্রকাশক:: জাহিদুল আলম
যোগাযোগ:
পৌর সুপার মার্কেট ( দ্বিতীয় তলা), এমআর রোড, মাগুরা।
ফোন: ০১৯২১১৬১৬৮৭, ০১৭১৬২৩২৯৬২
ইমেইল: maguraprotidin@gmail.com