প্রথম পাতা » সংবাদ প্রতিদিন » জলাবদ্ধতায় বাধাগ্রস্থ মাগুরার প্রধান দু’টি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষা কার্যক্রম

জলাবদ্ধতায় বাধাগ্রস্থ মাগুরার প্রধান দু’টি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষা কার্যক্রম

জলাবদ্ধতায় বাধাগ্রস্থ মাগুরার প্রধান দু’টি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষা কার্যক্রম

পানি নিস্কাশনের ব্যাবস্থা না থাকায় কয়েক দিনের ভারি বর্ষণে মাগুরা শহরের প্রধান দু’টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় ও আদর্শ কলেজে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। প্রায় দ্ইু মাস ধরে শহরের প্রধান দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ঢোকার রাস্তা ও মাঠ পানির নিচে তলিয়ে গেলেও পৌরসভা বা সংশ্লিষ্ট কোন দপ্তর তা নিস্কাশনের ব্যবস্থা করেনি। যে কারণে বাধ্য হয়ে শিক্ষক, কর্মচারী ও শিক্ষর্থীদের কাদা-পানি ভেঙ্গে শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে নিতে চরম দুর্ভোগ পড়তে হচ্ছে।
মাগুরা আদর্শ কলেজের অধ্যক্ষ সূর্যকান্ত বিশ্বাস জানান, পৌরসভার ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় প্রতি বছর বর্ষা মৌসুমে ৩ থেকে ৪ মাস কলেজে ঢোকার মূল রাস্তাসহ গোটা মাঠ জলাবদ্ধ হয়ে পড়ে। চলতি মৌসুমে টানা এ জলাবদ্ধতা আরো আরো ব্যাপক আকার ধারণ করেছে। যে কারণে কলেজের পাঠদানসহ সার্বিক কার্যক্রম চালিয়ে নিতে সমস্যা হচ্ছে। কলেজের তিন হাজারের উপরে শিক্ষার্থী ও শতাধিক শিক্ষক কর্মচারীকে কাদা-পানি ভেঙ্গে কলেজে আসা-যাওয়া করতে হচ্ছে। এক্ষেত্রে প্রায় ঘটছে ছোট-খাট দুর্ঘটনা। অধ্যক্ষ জানান, ড্রেনেজ ব্যবস্থা ও কলেজ ক্যাম্পাসে মাটি ভরাটের জন্য পৌর সভাসহ বিভিন্ন দপ্তরে বহুবার আবেদন-নিবেদন ও এ দাবীতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীর মানববন্ধ, বিক্ষোভ সমাবেশ পর্যন্ত করেছে। কিন্তু এতে কোন কাজ হয়নি।
আদর্শ কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্র কামাল, মেহেদীসহ অনেকে জানায়, পড়াশুনার পাশাপাশি কলেজ সুস্থ্য বিনোদনের স্থান। কিন্তু সেখানে একদিকে কাদা-পানি ভেঙ্গে ক্লাসে যেতে হয়, তার উপর গোটা ক্যাম্পাসে প্রায় মাজা সমান পানি। কোথাও দাড়ানোর জায়গা নেই। এ দুরাবস্থার কারণে তারা কলেজে যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছে।
কাদা-পানি ভেঙ্গে ক্লাসে যেতে হয়, তার উপর গোটা ক্যাম্পাসে প্রায় মাজা সমান পানির কারণে অনেক শক্ষার্থী কলেজে আসা বন্ধ করে দিয়েছেন।
মাগুরা সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রবীন্দ্র নাথ বিশ্বাস বলেন, বর্ষা মৌসুমে ৩ থেকে ৪ মাস কাদা পানির কারণে জেলার প্রধান এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি লেখা পড়ার পাশাপাশ বিভিন্ন ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। জলাবদ্ধতার কারণে এ্যাসেমবিল ও খেলা ধুলা বন্ধ রয়েছে। বিশেষ করে চার পাশে ব্যাপক জলাবদ্ধতা সৃষ্টির কারনে বিদ্যালয়ের ভবনসহ অবকাঠামোগুলো ক্ষতির সম্মুখিন হচ্ছে। জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি পেতে পানি নিষ্কাশনে ড্রেন নির্মাণ Magura-Dranage-Pic-(2)ও মাটি ভরাটের জন্য পৌর সভা ও জেলা প্রশাসনে প্রতি বছরই আবেদন করা হয়। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোন সমাধান হয়নি।
দীপ্ত, সাগর সহ এ বিদ্যালয়ের একাধিক শিক্ষার্থী জানায়, ক্লাসের ফাকে তারা স্কুল মাঠে ফুটবল, ক্রিকেটসহ বিভিন্ন ধরনের খেলাধুলা করতো। কিন্তু জলাবদ্ধতার কারণে তা বন্ধ হয়ে গেছে। বর্তমানে স্কুলে আসলে মনে হয় চার পাশে সমুদ্র সৃিষ্ট হয়েছে। এছাড়া স্কুল মাঠের সামনের অংশের পানি পচে দুরগন্ধ বের হচ্ছে। ছড়াচ্ছে রোগ জীবানু ।
মাগুরা কলেজ পাড়ার বাসিন্দা ও আদর্শ কলেজের ম্যানেজিং কমিটির সাবেক সদস্য আবু রেজা নান্টু বলেন, গত অর্থ বছরে মাগুরা পৌরসভা ড্রেন নির্মাণের জন্য ৩ কোটি খরচ করেছে। গত এক দশকে পৌর সভা ড্রেন নির্মাণে ২০ কোটি টাকা খরচ করেছে। নি¤œমানের কাজ ও অপ্রয়োজনীয় স্থানে অপরিকল্পিত ড্রেন নির্মান করে অর্থ বাণিজ্যের জন্য তা জনগণের কাজে আসেনি। যে কারণে শুধু স্কুল-কলেজ নয় শহরের অনেক স্থানে জলাবদ্ধতার করনে মানুষ ঘর থেকে বের হতে পারছে না।
পৌর সভার প্রকৌশল বিভাগে খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, গত অর্থ বছরে শহরে ড্রেন নির্মানের জন্য সোয়া তিন কোটি টাকা খরচ করেছে পৌরসভা।
এদিকে পৌর সভার কর্মচারীদের ভিতর থেকে জানা গেছে, শুধু বিগত অর্থ বছর নয়, পূর্বের অধিকাংশ অর্থ বছরেই ড্রেন নিমার্ণের জন্য পৌরসভা কোটি-কোটি টাকা খরচ করেছে। তবে তাতে শহরের পানি নিস্কাশনে কাজের কাজ কিছ্্ুই হয়নি। মূলত ব্যক্তিগত লাভের জন্য বর্তমান ও বিগত দিনের প্রায় মেয়রসহ সংশ্লিষ্ঠরা পরিকল্পনা ছাড়া যেখানে সেখানে ড্রেন নির্মাণ করেছেন। এমন অনেক ড্রেন আছে যে ড্রেন দিয়ে পানি নামে না।  উল্টো পানি উঠে এসে আরো জলাবদ্ধতা সৃষ্ট হয়।
এ ব্যাপারে পৌর মেয়র ইকবাল আকতার খান কাফুর বলেন, আদর্শ কলেজ কতৃপক্ষ মার্কেট বানিয়ে পানি নিস্কাশনের পথ বন্ধ করে নিজেরা-নিজেদের জলাবদ্ধতা সৃষ্টি করেছে। এ ব্যাপারে পৌর সভার কিছু করার নেই। অন্যদিকে ভায়না এতিমখানা মাদ্রাসার পাশ দিয়ে সরকারী বালক বিদ্যালয় পিছন দিয়ে অচিরেই ড্রেন নির্মাণের কাজ শুরু হবে। এটি নির্মিত হলে বালক বিদ্যালয়সহ আশপাশের এলাকার জলাবদ্ধতা দূর হবে।
অলোক বোস/ প্রতিদিন ডেস্ক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Logo_image
সম্পাদক: জাহিদ রহমান
নির্বাহী সম্পাদক: আবু বাসার আখন্দ
প্রকাশক:: জাহিদুল আলম
যোগাযোগ:
পৌর সুপার মার্কেট ( দ্বিতীয় তলা), এমআর রোড, মাগুরা।
ফোন: ০১৯২১১৬১৬৮৭, ০১৭১৬২৩২৯৬২
ইমেইল: maguraprotidin@gmail.com