আজ, সোমবার | ২৫শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং | বিকাল ৫:১৬

ব্রেকিং নিউজ :
জামুকার যাচাই বাছাইয়ের মুখে মাগুরার ৭৫৫ জন মুক্তিযোদ্ধা মাগুরা পৌরসভার বিগত পরিষদের সম্মানে বিদায় অনুষ্ঠান পিএসসিতে নিয়োগ পেলেন মাগুরার সন্তান ডা. উত্তম কুমার মাগুরায় প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্রের হুইল চেয়ার ও হিয়ারিং এইড বিতরণ মাগুরায় এসএসসি বন্ধন-২০০১ এর কম্বল বিতরণ সকল শিক্ষা ফি মওকুফের দাবি জানিয়েছে মাগুরা ছাত্রফ্রন্ট ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জন্যে প্রধানমন্ত্রীর উপহার বিষয়ে মাগুরা জেলা প্রশাসকের প্রেস ব্রিফিং মাগুরায় করোনা মোকাবেলায় প্রবাসী যুবলীগ নেতা রফিকুল হককে সংবর্ধনা মাগুরা প্রেসক্লাবে শীতার্ত অসহায় মানুষের মধ্যে কম্বল বিতরণ মাগুরায় আওয়ামীলীগ সভাপতি তানজেল হোসেন খানের মৃত্যুবার্ষিকী পালিত
অতিরিক্ত মোবাইল ব্যবহারে দৃষ্টিশক্তি হারিয়ে ফেলার সম্ভাবনা কতটা?

অতিরিক্ত মোবাইল ব্যবহারে দৃষ্টিশক্তি হারিয়ে ফেলার সম্ভাবনা কতটা?

মাগুরা প্রতিদিন ডটকম ডেস্ক : নীল রশ্মির তরঙ্গ দৈর্ঘ্য কম কিন্তু শক্তি বেশি। চোখের রেটিনাতে যে সমস্ত আলোক সংবেদনশীল কোষ থাকে তারা রেটিনাল নামক কিছু পদার্থের কারনে সক্রিয় হয়। কিন্তু উজ্জ্বল নীল রং এসব রেটিনালকে অতিরিক্ত সক্রিয় করায় রেটিনার কোষসমূহ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। অন্ধকার ঘরে এই ক্ষতি বেড়ে যায়।

দীর্ঘসময় ব্যবহারে (সপ্তাহে মোট 24 ঘন্টার বেশি হলে ) ক্রমাগত ল্যাপটপ বা মোবাইল ফোনের নীল রশ্মি চোখের আলোক সংবেদনশীল কোষ পৌঁছে , সেখান থেকে রেটিনার ম্যাকুলা ডেনসা ও দৃষ্টিসীমার কেন্দ্রীয় অংশ নষ্ট হয়ে যায়। এটি irreversible damage বা নিরাময় অযোগ্য রোগ। সাধারণত বয়স পঞ্চাশ উর্দ্ধে এটি বেশি দেখা যায়।

অন্ধকার রুমে সেল ফোন বা টিভি ,ল্যাপটপ ব্যবহার করলে চোখের মণি বেশি সম্প্রসারিত হয়। তখন এই রশ্মি আরো বেশি চোখের ভিতরে ঢোকে।

আমাদের চারপাশে ব্যবহৃত বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ডিভাইস থেকে একনাগাড়ে অনেকক্ষণ বা কিছুক্ষন পরপর নীল রশ্মির যে বিকিরণ হয় আমাদের চোখের লেন্স বা কর্নিয়া তা ঠেকাতে পারেনা।

-অরূপ সরকার, Quora

শেয়ার করুন...




©All rights reserved Magura Protidin. 2018-2020
IT & Technical Support : BS Technology