আজ, মঙ্গলবার | ১৫ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | সকাল ৯:১৬


বোঝাপড়া-সাইকোলজিক্যাল ফ্যাক্টস

তাথির মোহতাদি : সাধারণত মানুষের মধ্যে একটি ছেলে এবং প্রায় সম বয়সি মেয়ের ভাবনা, চিন্তা এবং পর্যবেক্ষণ ক্ষমতার মধ্যে বেশ তফাত দেখা যায়। বেশ কয়েকটি ধাপে কিন্তু সংক্ষেপে উল্লেখ করা হলো। যে কোনো মানুষই বিপরীত মানুষটির সম্পর্কে একটু মনোযোগী হলে বিষয়গুলো নিজের কাছেই প্রকটভাবে ধরা পড়তে পারে।

একজন মহিলার কোনো কথা বা বিষয় গোপন রাখতে পারার গড় সময় মাত্র ৪৭ ঘন্টা ১৫ মিনিট বা প্রায় দুইদিন। কাঁদে বছরে ৩০-৬০ বার। যেখানে পুরুষরা প্রায় ৬ বার কাঁদে।

নারীরা স্বাভাবিকভাবেই পুরুষদের চেয়ে ভাল মিথ্যাবাদী। এছাড়াও তারা মিথ্যা সনাক্ত করতে ভাল পারে (ভাল মিথ্যাবাদীরা অন্যের মিথ্যা সনাক্ত করতে দক্ষ) । তাই যদি কোন মেয়ে আপনাকে একটা প্রশ্ন করে, তাহলে তাকে সত্যিটা বলাই ভাল। সম্ভবত সে জিজ্ঞেস করছে কারণ সে ইতিমধ্যেই উত্তর জানে আর আপনাকে পরীক্ষা করতে চাচ্ছে।

মেয়েদের সূক্ষ্ম সূক্ষ্ম ব্যাপার মনে রাখলে তারা নিজেদের স্পেশাল অনুভব করে। ( যেমন তাদের বলা কোনো কথা বা পড়া কোনো ড্রেস এর কথা সুযোগ পেলেই তাদের মনে করিয়ে দিন )।

মেয়েরা জন্মগতভাবেই অধিকার সূচক হয়ে থাকে এবং আপনাকে অন্যকারো সাথে কথা বলতে দেখলেও ঈর্ষান্বিত হয়।

আপনি নিজের সব ভয়, সমস্যা, ভিতরের অনুভূতির কথা খুলে বললে মেয়েরা তা পছন্দ করে। এতে তারা নিজেকে আপনার কাছে গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করে।

আপনার গম্ভীর বলিষ্ঠ গলার স্বর মেয়েদের কাছে সঙ্গীতের মত শোনায়।

মেয়েরা বিশেষ কারণ ছাড়া কোনো পোস্ট বা স্ট্যাটাস শেয়ার করে না, এর পেছনে সবসময়ই কোনো কারণ থাকে।

বন্ধু বা পরিবারকে তাদের ব্যাপারে জানালে মেয়েরা খুবই খুশি হয়।

মেয়েরা এটা পছন্দ করে যখন আপনি আপনার জীবনে তাদের গুরুত্ব ব্যাখ্যা করেন। তারা হয়তো আপনার কিছু পয়েন্ট অস্বীকার করছে কিন্তু মেয়েরা লজ্জা বোধ করে অথবা ভেতর থেকে খুব খুশি বোধ করে।

মেয়েরা গোপনে আপনি প্রথমে টেক্সট করার জন্য অপেক্ষা করে।

কোন নারীই দুর্বল পুরুষের সাথে থাকতে চায় না, মেয়েরা মাঝে মাঝে আধিপত্য পছন্দ করে।

যখন মেয়েরা বলে -আমি তোমাকে ভালবাসি, তারা এটা আসলেই বোঝায়।

মেয়েরা জানে তাদের কেমন দেখায় তাও তারা তা জিজ্ঞাসা করে কারণ মেয়েরা প্রশংসা ভালোবাসে।

মেয়েরা এমন পুরুষের উপর সহজে হাল ছেড়ে দেয় না যাকে মেয়েরা ভালোবাসে, কিন্তু একবার মেয়েদের অনুভূতি শেষ হয়ে গেলে, আপনি যাই করুন না কেন, মেয়েরা আর ফিরে আসে না।

মেয়েরা খারাপ ছেলের সাথে থাকতে চায় না। নারীরা যা চায় তা হচ্ছে একজন চমৎকার লোকের সাথে থাকা, যে আত্মবিশ্বাসী এবং একজন নেতৃত্ববান ; যে সীমা লঙ্ঘন করে না , নিজেকে সম্মান করে আর তাকেও।

মনোবিজ্ঞানীরা নির্ধারণ করেছেন যে একজন মহিলা একজন অপরিচিত ব্যক্তির মূল্যায়ন করতে মাত্র ৪৫ সেকেন্ড সময় নেয়। এর মধ্যে ১০ সেকেন্ড এটি ফিগারের সামগ্রিক ছাপ তৈরি করে, ৮ সেকেন্ড চোখ, ৭ সেকেন্ড ঠোঁট এবং চিবুকে ১০ সেকেন্ড তাকায় , ৫ সেকেন্ড – কাঁধে। আর শেষ ৫ টা বিয়ের আংটির দিকে তাকিয়ে- যদি তা থাকে।

মেয়েরা যখন আপনার প্রতি পুরোপুরি আগ্রহ হারিয়ে ফেলে তারা খুবই ব্যস্ত থাকার ভান করে।

পুরুষদের তুলনায় মহিলাদের ডিপ্রেশন বা বিষণ্ণতার প্রবণতা বেশি।

মেয়েরা সবসময় আপনার উপর নির্ভরশীল থাকতে পছন্দ করেনা , তারা আপনাকে অর্থনৈতিক ও মানসিকভাবে সাহায্য করতে পছন্দ করে।

যখন কোন মহিলা আপনার প্রতি আর হতাশ এবং রাগান্বিত হয় না, তখন আপনি প্রায় গ্যারান্টি দিয়ে বলতে পারেন যে সে আপনাকে নিয়ে কোনো পরোয়া করে না।

উচ্চতর আইকিউ সম্পন্ন অর্থাৎ বুদ্ধিমতি মহিলাদের সঙ্গী খুঁজে পেতে কষ্ট হয়।

ছেলেরা যেমন মেয়েদের দিকে তাকায়, মেয়েরাও ছেলেদের দিকে তাকায়। হয়তো আরো বেশি।

শেয়ার করুন...




©All rights reserved Magura Protidin. 2018-2021
IT & Technical Support : BS Technology